দুয়েকটা রাতে না-ঘুমানো তারাদের গান

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

সব রাতে ঘুমোতে হয় না। কিছু কিছু রাতে না ঘুমানোও ভালো। না ঘুমালে কি হবে? আহা জানো না বুঝি, ওই যে আকাশজুড়ে জেগে থাকা অযুত-নিযুত তারা, তাদের গান শোনা যাবে। তাদের গল্পে বুঁদ হয়ে অজানাকে আবিষ্কার করা যাবে। তাদের বেদনায় নীল হওয়া যাবে।

আহা এই কথা কে কাকে বলে, জানো?
চিরকালীন এক প্রেমিক, তার প্রেমিকাকে বলে।
এক ধূসর স্বামী, তার তরুণী স্ত্রীকে বলে।

আর এত কথা বলতেই বা হবে কেন? শহুরে রূপকথায় কিছু কথা না হয়, অস্ফূট ও অব্যক্ত থেকে যাক। আমাদের এই আধো গ্লানি, না-পাওয়া ও মিথ্যা ডিজায়ারের দিনে, একটু স্মীত হাসিই প্রাপ্তি হিসাবে থেকে যাক না!

০২.

‘সবরাতে ঘুমাতে হয় না’ বলে ইস্পাহানি যে শহুরে রূপকথা রচনা করে, তা এই চেনা শহরের ইটপাথরের বুকে চাপা পড়া খানিকটা মায়া। একটু দীর্ঘশ্বাস। এক চিমটি প্রেম। আর সোনালী ভালোবাসা। আহা টিভিসিটি দেখতে দেখতে মনে পড়ে, বুক খুড়লেই এমন খলবলে জলের মতো মায়া কোথা থেকে উঠে আসে গো, জানো?

…ছেলেটার বানানো চা
হাতে নিয়ে, মেয়েটি
যখন স্মীত হাসি দেয়, সেই
হাসি কিন্তু দর্শকের
হৃদয়ে টুংটাং করে
হুইসেল বাজায়…

আমরা না জানলেও, কপিরাইটার ও ডিরেক্টর জানেন, বুকের অতলে কী থাকে। আর জানেন বলেই তাদের স্যালুট। এই টিভিসিটি খুবই অরগ্যানিক। মিনিমাল আচরণে কিন্তু ভিতরের গল্পটা গভীরে প্রোথিত! আর তরুণ স্বামী ও তরুণী স্ত্রী চরিত্রে যারা অভিনয় করেছেন, তারা দুর্দান্ত। বিশেষ করে, ছেলেটার বানানো চা হাতে নিয়ে, মেয়েটি যখন স্মীত হাসি দেয়, সেই হাসি কিন্তু দর্শকের হৃদয়ে টুংটাং করে হুইসেল বাজায়!

০৩.

অসাধারণ এই টিভিসিটা বাংলাদেশের বিখ্যাত এজেন্সি অ্যাডকম লিমিটেডের। আর নির্মাণ করেছেন আশফাকুজ্জামান বিপুল।  

Share.

About Author

টিম ওয়াটারমেলন

। ক্রেজি, ক্র্যাকড ও ক্রিয়েটিভ একদল তরুণের গ্যারেজ।

Leave A Reply

error: Content is protected !!